শিরোনাম

অফিস খোলার দিনে রেকর্ড ৪০ জনের মৃত্যু

৬৬ দিনের সাধারণ ছুটির শেষে অফিস খোলার প্রথম দিনেই করোনা মহামারীতে রেকর্ড ৪০ জনের মৃত্যু খবর দিল স্বাস্থ্য অধিদফতর

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ২ হাজার ৫৪৫ জন শনাক্ত হয়েছেন; যা করোনা রোগীর সংখ্যার হিসাবেও সর্বোচ্চ।

এ নিয়ে দেশে মোট কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হলেন ৪৭ হাজার ১৫৩ জন এবং মারা গেলেন ৬৫০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪০৬ জন এবং মোট সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৭৮১ জন।

রোববার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ২২৯টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১১ হাজার ৮৮৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৫৪৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৪০ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৩ জন ও নারী ৭ জন।

করোনাভাইরাসের মহামারী ঠেকাতে টানা ৬৬ দিনের সাধারণ ছুটি শেষে সীমিত আকারে আজ থেকে সব সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত এবং বেসরকারি অফিস খুলেছে।আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোও চালু হয়েছে পুরোদমে। এমনকি সীমিত পরিসরে গণপরিবহন, যাত্রীবাহী নৌযান ওট্রেনচলাচল শুরু হয়েছে।

ডা. নাসিমা সুলতানা আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪০৬ জন এবং মোট সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৭৮১ জন।

শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২০.৭৪ শতাংশ ও মৃত্যুর হার ১.৩৮ শতাংশ।

তিনি জানান, বয়স বিশ্লেষণে ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ৮ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১১ জন এবং ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৪ জন মারা গেছেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, বিভাগভিত্তিক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ঢাকা বিভাগে ২৮ জন, চট্টগ্রামে ৮ জন, খুলনায় ২ জন, রাজশাহীতে একজন ও রংপুরে একজন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালে ২৬ জন ও বাসায় ২ জন মারা গেছেন।

প্রসঙ্গত গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। দেশে প্রথম কোভিড-১৯ রোগীশনাক্ত হন ৮ মার্চ এবং এ রোগে আক্রান্ত প্রথম রোগীর মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ।

২৫ মার্চ প্রথমবারের মতো রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) জানায়, বাংলাদেশে সীমিত পরিসরে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন বা সামাজিকভাবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হচ্ছে।


Print pagePDF pageEmail page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

See In Your Language