শিরোনাম

ওবায়দুল কাদেরকে রাজনীতি শেখাতে ব্যর্থ হয়েছি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে ‘রাজনীতি শেখাতে ব্যর্থ হয়েছেন’ বলে আক্ষেপ করেছেন তার একসময়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের সাবেক শিক্ষক অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই বিভাগেরই ছাত্র ছিলেন ওবায়দুল কাদের।

সম্প্রতি ওবায়দুল কাদের বিএনপিকে ‘ঘরে বা অফিসে বসে’ রাজনীতি করার পরামর্শের জবাবে এসব কথা বলেন বিএনপিপন্থী এই শিক্ষক।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে স্বাধীনতা অধিকার আন্দোলন নামে একটি সংগঠনের গোলটেবিল বৈঠকে এ আক্ষেপ করেন এমাজউদ্দীন আহমদ।

দণ্ডপ্রাপ্ত খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন সংঘাতের দিকে নিতে সরকার উসকানি দিচ্ছে বলে বিএনপি নেতাদের অভিযোগের মধ্যে রোববার ওবায়দুল কাদের তাদের ঘরে বসে আন্দোলনের পরামর্শ দেন।

আপনারা যদি শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করেন তাহলে ঘরে করুন, অফিসে করুন, রাস্তায় কেন? জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করছেন কেন? ওবায়দুল কাদেরের এমন মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায়এমাজউদ্দীন বলেন, আমার এককালীন ছাত্র আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি জেনারেল, তিনি বলেছেন- ঘরের মধ্যে থেকে রাজনীতি করেন অথবা অফিসে বসে রাজনীতি করেন।

এমাজউদ্দিন বলেন, অফিসে বসে যে রাজনীতি হয় না, ঘরের মধ্যে থেকে যে রাজনীতি হয় না- এখন এই তরুণকে আমি কেমন করে শেখাব? শেখাতে পারিনি হয়তো, আমাদের ব্যর্থতা।

তবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের কথাটা ‘খানিকটা’ শুনে রাখা ভালো বলে মন্তব্য করে এমাজউদ্দীন বলেন, এভাবে দিন চললে তারপর পরিস্থিতি এমন অবস্থায় আসবে যখন আপনা-আপনি গতিটা দ্রুত হবে। হিংসাত্মক হওয়ার দরকার নেই। এজন্য অপেক্ষা বেশি দিন করার দরকার হবে না। কারণ, হিংসা-প্রতিহিংসা, নতুন হিংসা-প্রতিহিংসার জন্ম দেয়।

নির্বাচন ঘোষণার আগে সংসদ ভেঙে দিতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ১০ থেকে সাড়ে ১০ লাখ মানুষ প্রায় ৫০ হাজার মামলায় আসামি বা জড়িত হয়ে আছে। তাদের অনেকে কারাগারে, নির্বাচনের আগে তাদের প্রস্তুতিপর্ব চলতে দিতে হবে। প্রধানমন্ত্রীকেই নিরপেক্ষ নির্বাচনের আবহ তৈরি করে দিতে হবে। এসব না করে কিছুতেই নির্বাচনের দিকে যাওয়া যাবে না।


Print pagePDF pageEmail page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

See In Your Language