Templates by BIGtheme NET
শিরোনাম

কারাগারে ২৩৪তম দিন মাদার অব ডেমোক্রেসি অবরুদ্ধ  

রিজভী রাহাত: বিশেষ প্রতিনিধি:

শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৮, বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কারাবন্দিত্বের ২৩৪তম দিন।

বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৮, ম্যাণ্ডেটবিহীন আওয়ামী শাসকগোষ্ঠীর চরম হিংসার নির্মম শিকার, চক্রান্তমূলক মামলায় সাজানো অন্যায় সাজার মাধ্যমে জনগণের ভোটে তিনবার নির্বাচিত সফল সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিনরোডের পরিত্যক্ত কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। এমনকি এই ধরনের রায়ের পর বাংলাদেশের যেকোন সাধারণ মানুষ জামিন পেয়ে থাকেন। কিন্তু দেশের প্রথম উইমেন প্রধানমন্ত্রী ও একজন সিনিয়র সিটিজেনকে এই অধিকারটুকুও দেয়া হয়নি।

নব্বইয়ের স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের আপসহীন নেত্রী বেগম জিয়া কারাগারে অত্যন্ত অসুস্থ অবস্থায় রয়েছেন। তিনি নিজে, তাঁর পরিবার, চিকিৎসক ও দল, বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, মানবাধিকার সংগঠন ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার নেতৃবর্গের পক্ষ থেকে বিবৃতি ও সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বার বার তাঁর চিকিৎসার ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানানো হলেও কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেয়নি।

তাঁর কারাকক্ষের সামনে অস্থায়ী আদালত স্থাপন করে অমানবিক আচরণ করা হচ্ছে। দেশের এই প্রধান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে পবিত্র ঈদের দিনও স্বজনদের আনা খাবার খেতে দেয়া হয়নি, বাসার খাবারের জন্য অপেক্ষা করতে করতে সন্ধ্যা পর্যন্ত তিনি না খেয়ে ছিলেন। বাংলাদেশের গণতন্ত্র-সংগ্রামী আপসহীন এই নেত্রীকে কারাবন্দি রেখে অবৈধ শাসকগোষ্ঠী তাদের দুঃশাসন-দুর্নীতি-সন্ত্রাস অব্যাহত রাখতে চায়। গুম-খুন-নির্যাতন-গ্রেপ্তার-মামলার ওপর ভর করে জনগণের লাখো কোটি টাকা আত্নসাৎ করা এই স্বৈরশাসকগোষ্ঠী বর্বরপন্থায় ক্ষমতা আঁকড়ে ধরে রাখতে চায়। জনগনের ইচ্ছা তাদের কাছে তুচ্ছ। বেগম জিয়াই আওয়ামী-অন্ধকারযুগে চোখ ধাঁধানো আলোর ঝড়, দুঃশাসনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের গ্রেটওয়াল।

কৃষক, শ্রমিক, মজুর, গৃহিনী, পেশাজীবী, রাজনৈতিকর্মী — বাংলাদেশের সর্বস্তরের জনগন ‘গণতন্ত্রের-মা’ বেগম জিয়ার মুক্তি ও তাঁদের ভোটাধিকার ফিরে পাওয়ার দুই লক্ষ্যে ইস্পাত কঠিন গণঐক্য (Coalition of people) তৈরি করে চলেছে। জনগণ স্বৈরশাসনের মসনদ উপড়ে ফেলে গণতন্ত্র সংগ্রামী বেগম জিয়া্কে মুক্ত করতে সংকল্পবদ্ধ।


Print pagePDF pageEmail page
Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*