Templates by BIGtheme NET
শিরোনাম

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা পরবর্তী শুনানি ৭ই অক্টোবর

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জামিন কেন বাতিল করা হবে না – এ মর্মে তাঁর আইনজীবীদের কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে এ মামলায় খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা তাঁর পক্ষে ‘ডিফেন্ড’ না-কি ‘রিপ্রেজেন্ট’ করছেন তাঁর ব্যাখ্যা চেয়েছেন আদালত।

পাশাপাশি আদালতের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে মামলার অন্য দুই আসামী জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খা্নের করা আবেদন নাকচ করে মনিরুল ইসলাম খানের জামিন বাতিল করে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান। এই মামলার পরবর্তী শুনানি ৭ই অক্টোবর ধার্য করেছেন আদালতের বিচারক। রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার বিচারকাজ চলছে। আসামিপক্ষ বিচারকাজে অসহযোগিতা করছেন- এমন অভিযোগ তুলে দুদকের আইনজীবী এ মামলার রায়ের দিন ধার্যের যে আবেদন করেছিলেন সে বিষয়ে আজ আদেশ দেওয়ার কথা ছিল। আদালত আগামী ধার্য তারিখে (৭ই অক্টোবর) এ ব্যাপারে আদেশ দেবেন বলে আইনজীবীদের জানান। গত ২০শে সেপ্টেম্বর এই আদালতের দেয়া আদেশের (খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে বিচারকাজ) বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়েছে জানিয়ে আজ মামলার কার্যক্রম মুলতবির আবেদন করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা।

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া ও মাসুদ আহমেদ তালুকদার। জিয়াউল ইসলাম মুন্নার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. আমিনুল ইসলাম। মনিরুল ইসলাম খানের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. আখতারুজ্জামান।


Print pagePDF pageEmail page
Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*