শিরোনাম

দুই নারী নোবেল পেল জিনোম সম্পাদনার কৌশল উদ্ভাবনে

জিন প্রকৌশলের মাধ্যমে ডিএনএ সম্পাদনার ‘সূক্ষ্মতম’ কৌশল উদ্ভাবন করে এ বছর রসায়নে নোবেল পেলেন দুই নারী। তারা হলেন- ফ্রান্সের ইমানুয়েল কারপেন্টিয়ার এবং যুক্তরাষ্ট্রের জেনিফার এ ডোডনা। বুধবার সুইডেনের স্থানীয় সময় বেলা ১১টা ৪৫ মিনিটে রসায়নে নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে দ্য রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস।

এবারের নোবেল পুরস্কারের এক কোটি সুইডিশ ক্রোনার ভাগ করে নেবেন ইমানুয়েল ও জেনিফার। চলতি বছর মর্যাদাপূর্ণ নোবেল পুরস্কারজয়ীদের গত বছরের তুলনায় ১০ লাখ ক্রোন বা প্রায় এক লাখ ১০ হাজার ডলার বেশি দেয়া হবে বলে সম্প্রতি ঘোষণা দিয়েছেন নোবেল ফাউন্ডেশনের প্রধান লারস হেইকেনস্টেন।

এর আগে ১৯১১ সালে প্রথম রসায়নে নোবেল জেতেন কোনো নারী। তিনি ছিলেন ফরাসি গবেষক মেরি কুরি। যিনি ১৯০৩ সালে পদার্থেও নোবেল জয় করেছিলেন। প্রায় একশ’ ৯ বছর পর আবারও রসায়নে নোবেল পেলেন কোনো নারী।

গত বছর লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির উন্নয়ন ঘটিয়ে মার্কিন বিজ্ঞানী জন বি গুডএনাফ ও এম স্ট্যানলি হুইটিংহ্যাম এবং জাপানের আকিরা ইয়োশিনো রসায়ন শাস্ত্রে নোবেল জয় করেছেন।

ডিনামাইট আবিষ্কারক আলফ্রেড নোবেল ৩ কোটি ১০ লাখ ক্রোনার রেখে গিয়েছিলেন, বর্তমানে যা প্রায় ১৮০ কোটি ক্রোনের সমান। তার রেখে যাওয়া ওই অর্থ দিয়েই ১৯০১ সাল থেকে মর্যাদাপূর্ণ এ নোবেল পুরস্কারের প্রচলন করা হয়। এতদিন এ নোবেল পুরস্কারের অর্থমূল্য ছিল ৯০ লাখ সুইডিশ ক্রোনার। এবার দেয়া হবে এক কোটি ক্রোনার বা ৯ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

আজ সাহিত্য, আগামীকাল শান্তি এবং ১২ অক্টোবর সোমবার অর্থনীতিতে নোবেল বিজয়ী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নাম ঘোষণা করা হবে।


Print pagePDF pageEmail page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

See In Your Language