শিরোনাম

বগুড়ার শেরপুরে সেনাবাহিনীর ভুয়া সার্জেন্ট আটক

শেরপুর(বগুড়া)প্রতিনিধি: বগুড়ার শেরপুরের রাজাপুর গ্রামে ভুয়া সার্জেন্ট সেজে প্রতারণা করে অনার্সের ছাত্রীকে বিয়ে করার ঘটনায় গত শুক্রবার রাতে প্রতারক মনির হোসেন বাবু (৪৫) কে আটক করেছে শেরপুর থানায় পুলিশ।
জানা যায়, নাটোর জেলার লালপুর উপজেলার দুরদরিয়া গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে সেনাবাহিনীর সার্জেন্ট মনির হোসেন বাবু শেরপুরের মির্জাপুর গ্রামের মৃত অপুর আলীর ছেলে ঘটক মোকছেদ আলীকে ধর্ম পিতা বানায়। সেই সুবাদে শেরপুরের রাজাপুর এলাকায় ঘোরাফেরা করতে গিয়ে গোলাম হোসেনের মেয়ে উম্মে হাফসাকে দেখে পছন্দ করে। পরে তার ধর্ম পিতার কাছ থেকে হাফছার মোবাইল নাম্বার নিয়ে তার সাথে ফোনে কথা বলতে থাকে। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ২০১৭ সালের ৩০ জুন ৭ লাখ টাকা কাবিন দিয়ে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পরে হাফসার ফুফাতো ভাই একই গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেনের ছেলে আব্দুল হামিদকে আর্মিতে চাকরী দেয়ার কথা বলে দফায় দফায় ৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়।
এ ব্যাপারে উম্মে হাফসা জানায়, সে ২০ বছর আগে নাটোর জেলার লালপুর উপজেলার দুরদরিয়া গ্রামের মজের প্রামানিক এর মেয়ে হাসনা খাতুনকে প্রথম বিয়ে করে। প্রথম বিয়ের ৬ বছর পর স্ত্রী ও সন্তানকে রেখে বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার রহিমাবাদ শালুকগাড়ি গ্রামের মৃত ইসমাইল হোসেনের মেয়ে রাজিয়া খাতুন কে ব্যবসায়ী পরিচয় দিয়ে বিয়ে করে। এভাবে সে বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন পরিচয় দিয়ে অসহায় মানুষদের লোভ দেখিয়ে প্রতারণা করে আসছে। এই প্রতারণার বিষয়টি আমি জানতে পারলে গত শুক্রবার রাতে মনির হোসেন বাবু আমাদের বাড়িতে আসলে কৌশলে পুলিশে খবর দেই। পরে শেরপুর থানা পুলিশ রাত ১১ টার দিকে এসে তাকে থানায় নিয়ে যায়। এই সংবাদ লেখা পর্যন্ত মামলা প্রস্তুতি চলছে।
এ ব্যাপারে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, খবর পেয়ে প্রতারক কে আটক করেছি। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।


Print pagePDF pageEmail page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

See In Your Language