শিরোনাম

বান্দরবানে নানা আয়োজনে অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ শীর্ষক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, বান্দরবান  জেলা প্রতিনিধি:
“সময় এখন আমাদের সময় এখন বাংলাদেশের” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বান্দরবানে নানা আয়োজনে অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ শীর্ষক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ শীর্ষক অনুষ্ঠান উপলক্ষে ১১ জানুয়ারী শনিবার সকালে বান্দরবান সদর উপজেলা পরিষদ হতে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়,র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান প্রধান সড়ক পদক্ষিণ করে পুনরাই একই স্থানে এসে শেষ হয়। বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: নোমান হোসেন এর সভাপতিত্বে র‌্যালিত্তোর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একে এম জাহাঙ্গীর। সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) নাজমা বিনতে আমিন এর সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন সরদ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি প্লাইলং মারমা, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রাজু মং, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান য়ইসা প্রæ মারমা, ২নং কুহালং ইউপি চেয়ারম্যান সানাপ্রæ মারমা, ৪নং সুয়ালক ইউপি চেয়ারম্যান উক্যনু মারমা, ১নং রাজবিলা ইউপি চেয়াম্যান ক্য অং প্রæ মারমা,৩নং সদর ইউপি চেয়াম্যান সামৈ প্রæ সাবু,৫নং টংকাবতি চেয়ারম্যান প্লূকান ¤্রাে। এছাড়াও সুয়ালক ইউপি ১নং প্যানেল চেয়ারম্যান মোঃ জসিম উদ্দীন,সুয়াল ইউপি সচিব ক্যমং হ্লা মারমা, কুহালং ইউপি সচিব মো: সাইফুল ইসলাম সহ অন্যান্য সচিবগন,সাংবাদিকগণ,স্কুল ও কলেজের ছাত্র-ছাত্রীগণ,সদর উপজেলার প্রতিটি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।
অর্থ মন্ত্রণালয় এর উদ্যোগে ও বান্দরবান সদর উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় প্রোগ্রামটি বাস্তবায়িত হয়। আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু এই দিনে ১৯৭২ সালে ১০ জানুয়ারী পাকিস্তানী কারাগার হতে দেশে ফিরে আসেন। ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীন হলেও ১০ জানুয়ারী বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের এই দিনে বাঙালী জাতির স্বাধীনতা পরিপূর্ণতা পায়। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশে ফিরে না এলে বাংলাদেশে অর্থনৈতিক ভাকে আরো অনেক পিছিয়ে থাকতো। বর্তমানে বাংলাদেশকে সারা বিশে^ উন্নয়নশীল একটি দেশ হিসেবে চিনে। নি:সন্দেহে এর পিছনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যোগ্য কণ্যা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র অবদান রয়েছে। আগামীতে বাংলাদেশ আরো এগিয়ে যাবে এই প্রত্যাশা। পরে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।


Print pagePDF pageEmail page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

See In Your Language