শিরোনাম

বান্দরবানে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহের উদ্বোধন

মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম: বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি:
“পরিবার পরিকল্পনা সেবা গ্রহণ করি,কৈশোরকালীন মাতৃত্ব রোধ করি” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বান্দরবানে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহের উদ্বোধন করা হয়েছে।
শনিবার (৭ ডিসেম্বর) বান্দরবান মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র হতে একটি বর্ণ্যাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে সেবা সপ্তাহের শুভ উদ্বোধন করা হয়।বান্দরবান জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডাঃ অং চালু এর সভাপতিত্বে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা।পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের সহকারী পরিচালক এমরান হোসেন চৌধুরীর সঞ্চালনায় আয়োজিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন ডাঃ অংসুই প্রু,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এম মোবাশ্বের হোসাইন,বান্দরবান সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান  একেএম জাহাঙ্গীর আলম।অনুষ্ঠানে সেবা ও প্রচার সপ্তাহের মূল প্রতিপাদ্য উপস্থাপন করেন জেলা কনসালট্যান্ট ডাঃ নুরসসাফা চৌধুরী,বান্দরবান প্রেসক্লাবের সভাপতি মনিরুল ইসলাম মনু,মা ও শিশু কেন্দ্রের ডাঃ মনির রিমন,পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা অসীম কুমার চাকমা,পরিবার পরিকল্পনা জেলা তত্বাবধায়ক হাজী বশির আহম্মদ।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা,২০১৮ সালে দেশজুড়ে পালিত হওয়া পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহে বান্দরবান জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ সারাদেশে ১ম স্থান অর্জন করায় বান্দরবান পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারী কে শুভেচ্ছা জানান।এই ধরনের সাফল্য আগামীতেও অব্যাহত থাকবে আশাবাদ ব্যাক্ত করে প্রচার সপ্তাহ’২০১৯ এর সফলতা কামনা করেন।পাশাপাশি বান্দরবান পরিষদ প্রচার সপ্তাহ সফল করতে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ,বান্দরবান কে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে সহযোগিতা করার আশ্বাস প্রদান করেন।
সভাপতির বক্তব্যে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ এর উপ-পরিচালক ডাঃ অং চালু বলেন,বর্তমানে সারা দেশে কিশোরী প্রজনন হার প্রতি হাজারে ১১৩ যা মাতৃমৃত্যু হার বৃদ্ধির অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কৈশোরকালীন স্বাস্থ্য সেবা এবং বয়োসন্ধিকালীন পরিবর্তনের বিষয়ে বর্তমান প্রজন্মকে সচেতন করা গেলে কিশোরী প্রজনন হার ও মাতৃমৃত্যুর হার অনেকাংশে হ্রাস করা যাবে।এবিষয়ে তিনি স্বাস্থ্য বিভাগ ও সহযোগী বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি স্থানীয় প্রশাসন,জনপ্রতিনিধি এবং প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক ও অনলাইন গনমাধ্যমে কর্মরত সংবাদ কর্মীদের সার্বিক সহযোগীতা কামনা করেন।পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহে জেলার সকল সেবা কেন্দ্রে একযোগে পরিবার পরিকল্পনা,মা ও শিশু স্বাস্থ্য এবং কৈশোরকালীন স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হবে।সেবা কেন্দ্র সমূহ-পরিবার কল্যাণ সহকারী,স্যাটেলাইট ক্লিনিক,ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স (এমসিএইচ ইউনিট) এবং মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র।

Print pagePDF pageEmail page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

See In Your Language