শিরোনাম

শেখ হাসিনার বিকল্প শুধু শেখ হাসিনা আর নৌকার বিকল্প শুধুই নৌকাই

শিগগিরই দেশে জাতীয় নির্বাচন হতে যাচ্ছে। বর্তমান উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে হবে। আবার অন্ধকারে নিমজ্জিত না হতে চাই তাহলে নির্বাচনে মনে রাখতে হবে নৌকার বিকল্প আর কিছু নেই। শেখ হাসিনার বিকল্প শুধু শেখ হাসিনা আর নৌকার বিকল্প শুধুই নৌকাই।

শুক্রবার বিকেলে গাজীপুর শহরের শহীদ বরকত স্টেডিয়ামে জাহাঙ্গীর আলম শিক্ষা ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত কৃতী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, গাজীপুরকে মেট্রোপলিটন সিটি ঘোষণা করা হয়ে গেছে। গাজীপুর মেট্রোপলিটন আইন সংসদে ওঠানো হয়েছে এবং সংসদীয় কমিটি থেকে প্রতিবেদনও দেওয়া হয়েছে। সংসদের আগামী অধিবেশনের মধ্যেই এটা পাস হয়ে যাবে।

জনদুর্ভোগের কথা বলে বিএনপিকে ঢাকায় সমাবেশ করার অনুমতি না দেওয়া প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘পুলিশ কমিশনার যখন মনে করেন যে কোনো রকম বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি হতে পারে কিংবা কোনো রকম আশঙ্কা থাকে, তখনই তাঁরা মিটিং করা থেকে বিরত থাকতে বলেন। এর মানে এটি নয় যে তাদের কোনো দিন আর মিটিং করতে দেবেন না। তারা সেই সময় যেদিন চেয়েছে, তার বদলে আরেক দিন তাদের করতে দেওয়া হবে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা আমাদের নিজস্ব বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট কিছুদিনের মধ্যে মহাকাশে উৎক্ষেপণ করতে পারব। আমাদের মেট্রোরেল দৃশ্যমান হয়ে গেছে। এলিভেটেড এক্সপ্রেস দৃশ্যমান হচ্ছে। পদ্মা সেতু আমাদের গর্ব, এ সেতুর জন্য আমাদের কারও কাছে হাত পাততে হয়নি। আমরা সেই জাতি, আমরা মাথা উঁচু করে চলতে পারি। আমরা এখন কারও কাছে সহযোগিতা চাই না।’

নতুন ভোটারদের কাছে আহ্বান জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা শিগগিরই জাতীয় নির্বাচনে যাচ্ছি। নির্বাচনে আমাদের এ উন্নয়নের ধারা ও আলোর ধারা শুধু আমরা বজায় রাখতে চাই। আমরা যদি আবার অন্ধকারে নিমজ্জিত না হতে চাই তাহলে মনে রাখতে হবে নৌকার বিকল্প আর কিছু নেই। শেখ হাসিনার বিকল্প শুধু শেখ হাসিনা আর নৌকার বিকল্প শুধুই নৌকাই। নৌকাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে এই উন্নয়নের ধারাকে এই আলোকিত বাংলাদেশকে আরও বেশি আলোকিত হবে। যেন আমাদের স্বপ্নের ২০২১ যেন বাস্তবায়িত হয় এবং ২০২১-এ মধ্যম আয়ের দেশে আমরা যেতে পারি। আমরা যেন আর অন্ধকারে নিমজ্জিত না হই। আমাদের বিদ্যুৎব্যবস্থা যেন আবার ভেঙে না পড়ে। আমরা দুর্নীতিগ্রস্ত দেশ আর হতে চাই না।’

জাহাঙ্গীর আলম শিক্ষা ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, গাজীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আখতারউজ্জামান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক হারুন অর রশিদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. গিয়াস উদ্দিন, ডুয়েটের উপাচার্য মো. আলাউদ্দিন, মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা মো. শফিকুল ইসলাম, ওয়াজ উদ্দিন মিয়া প্রমুখ।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জাহাঙ্গীর আলম শিক্ষা ফাউন্ডেশন কর্তৃক কৃতী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও বৃত্তি প্রদানের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানান এবং ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি এ জাতীয় উদ্যোগ অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে কৃতী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বৃত্তির চেক তুলে দেন মন্ত্রী। পরে জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।


Print pagePDF pageEmail page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

See In Your Language