শিরোনাম

সহজে করোনা মুক্ত থাকা সম্ভব-ওসি শহীদুল ইসলাম

ফেসবুক স্টাটাস থেকে নেয়া-জনস্বার্থে  প্রচারিত
জানি কষ্ট হবে, তারপরও শুরু করতে হবে। আমি শুরু করলাম, আপনি???
আমরা প্রত্যেকেই সংসারে থাকি। যেকোন প্রয়োজনে আমি বাহিরে যাচ্ছি, যেতে হচ্ছে। আমার খুব,খুব,খুবই কাছের প্রিয়জন ছেলে, মেয়ে, বউ, মা বাবা। তাদেরকে আগে নিরাপদ করি। তাদেরকে হেফাজত করি, তাদেরকে বাহিরে যেতে নিষেধ করি। জন জীবন থেকে বিচ্ছিন্ন করি। বাসায় রাখি।যেকোন ভাবেই বাহিরের সংস্পর্শ থেকে দূরে রাখি। টিচার, হুজুর, কাজের লোক, ড্রাইভার, আত্মীয় স্বজন থেকে দূরে রাখি। এটা খুবই সম্ভব। এভাবে যদি আমি আমার উপর নির্ভরশীল মানুষকে হেফাজত করতে পারি, তবে মোট জনসংখ্যার দুই-তৃতীয়াংশ নিরাপদ হয়ে যাবে। হিসাবটা খুবই সহজ, আমাদের দেশে প্রতিজন উপার্জনশীলের উপর নির্ভরশীল কম করে হলেও গড়ে ৩ জন।
এবার আসি আমি কিভাবে চলব। কাজে বের হওয়ার সময় বিদায় নিয়ে যাব স্বাভাবিক ভাবে। ফিরে এসে আবেগে দৌড়ে বাচ্চা কাচ্চা জড়িয়ে ধরে আদর শুরু করে দিব না। নিজে সম্পূর্ণ ভাবে পরিস্কার না হয়ে তাদের নিকটে যাব না। যথা সম্ভব দূরত্ব বজায় রাখব। কারন আমি যে আজ করোনা মুক্ত তার পরীক্ষা তো ঘরে সম্ভব না। তাই বাহির থেকে নিয়ে আসলাম না, তার গ্যারান্টি কি। এভাবে থাকা বেশ কঠিন, তবে অসম্ভব না। প্রিয়জনকে বাঁচিয়ে রাখতে এর চেয়ে ভাল উপায় এখন আর নাই। সময় ফুরিয়ে গেছে।
এভাবে আমার চলাচলটা নিয়ন্ত্রণ করতে পারলেই আমার পরিবার নিরাপদ। আমি শুরু করলাম। আপনি?
বউ বাচ্চার আদর সোহাগ বেচে থাকলে মাস দুয়েক পরেও পাওয়া যাবে। চলে গেলে সব শেষ।
আসুন চেষ্টা করি। শুরু করি। দুই-তৃতীয়াংশ দেশবাসীকে সহজে নিরাপদ রাখি। আর বাকী একতৃতীয়াংশ আমরা যাদের বাহিরে যেতেই হবে তারা সাবধানে চলে বিপদ মুক্তথাকি।
ইনশাআল্লাহ আমরা সফল হবই।।।

Print pagePDF pageEmail page

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

See In Your Language